কারমাইকেল কলেজকেন যাবেন,কিভাবে যাবেন : ১৯১৬ সালে বাংলার গভর্নর লর্ড ব্যারন কারমাইকেল ৯০০ বিঘা জমির ওপর এই কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন। রংপুর শহর ছেড়ে দক্ষিণে ঐতিহ্যবাহী লালবাগহাট পেরোলেই কারমাইকেল কলেজের বিশাল ফটক। ফটক পেরিয়ে পথের দুই ধার বৃক্ষ শোভিত। মূল ক্যাম্পাসে প্রবেশের পরই হাতের বাঁয়ে শিক্ষক আর ছাত্রীদের আবাসিক ভবন। এরপর বাঁয়ে ঘুরতেই কলেজ মসজিদ। দক্ষিণে শহীদ মিনার। এরপরই ইন্দো স্যারাসেনিক স্থাপত্যকীর্তির অনন্য নিদর্শন মূল ভবনটি। এখানেই রয়েছে প্রশাসনিক ভবন, অধ্যক্ষের কার্যালয়, ঐতিহ্যবাহী বাংলা বিভাগ, আনন্দ মোহন হল আর লাইব্রেরি। পাশেই বাংলা মঞ্চ। সঙ্গে আছে ক্যান্টিন। দক্ষিণে পা বাড়ালেই চোখে পড়ে রাজা গোবিন্দ লাল (জিএল) ছাত্রাবাস, পাশে আছে কেবি ছাত্রাবাস। তার সামনে দ্বিতীয় ও তৃতীয় ভবন। এর পরই রয়েছে ওসমানী ছাত্রাবাস এবং বিশাল দুটি খেলার মাঠ, ঐতিহ্যবাহী একটি বটগাছ ও মনকাড়া একটি লেক। কারমাইকেলের জমিতেই পৃথকভাবে গড়ে উঠছে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভবন। ঢাকার কল্যাণপুর থেকে প্রতিদিন অনেক গাড়ি আসে রংপুর। ভাড়া ২৫০-৫০০ টাকা। মডার্ন মোড়ে নেমে হেঁটেই পেঁৗছানো যায় কলেজ ক্যাম্পাসে।
ইতিহাস: বাংলার গভর্নর লর্ড ব্যারন কারমাইকেলের দ্বারা ১৯১৬ সালে কারমাইকেল কলেজের যাত্রা শুরু হয়। প্রতিষ্ঠা লগ্নে রংপুরের কিছু শীর্ষস্থানীয় জমিদার গুরুত্বপুর্ন ভূমিকা রাখে। তারা ৩০০ একর জমিতে কলেজ ভবন নির্মানের জন্য ৭৫০০০০ টাকা সংগ্রহ করে। জার্মান নাগরিক ড. ওয়াটকিন ছিলেন কলেজের প্রতিষ্ঠাকালীন অধ্যক্ষ। ৬১০ ফুট লম্বা ও ৬০ ফুট প্রশস্ত কলেজ ভবন যা বর্তমান বাংলা বিভাগ জমিদারি স্থাপত্যের এক অনন্য নিদর্শন। যা বাংলার সমৃদ্ধশালী ইতিহাস মোঘলীয় নির্মান কৌশলকে মনে করিয়ে দেয়। কারমাইকেল কলেজ কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ১৯১৭ সালে কলা বিভাগে উচ্চ মাধ্যমিক ও স্নাতক চালু করা হয়, উচ্চ মাধ্যমিক বিজ্ঞান ১৯২২ সালে ও বিজ্ঞান বিভাগে স্নাতক ১৯২৫ সাল থেকে শুরু হয়। ১৯৪৭ সাল পর্যন্ত এটি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ছিল. দেশ বিভাগের পর ১৯৪৭ সাল থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ১৯৫৩ সালে নতুনভাবে স্থাপিত রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন করা হয় যা ১৯৯২ সাল পর্যন্ত ছিল। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পর কারমাইকেল কলেজ ১৯৯২ সাল থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত হয়।
ক্যাম্পাস: ৭০০ একর ভূমির উপর অবস্থিত কারমাইকেল কলজের সুবিশাল ক্যাম্পাস। ছায়া সুনিবিড় এই বিশাল প্রাঙ্গনে একটি ক্যান্টিন, একটি সুদৃশ্য মসজিদ, ছাত্র-ছাত্রীদের আবাসিক হল,বিভিন্ন বিভাগীয় ভবনএবং বিশাল দুটি খেলার মাঠ। ক্যাম্পাসের দক্ষিণে রংপুর ক্যাডেট কলেজ, উত্তরে রংপুর রেল স্টেশন ও ঐতিহ্যবাহী লালবাগ হাট-বাজার এবং চারপাশ ঘিরে গড়ে উঠেছে অসংখ্য ছাত্রাবাস।

লেখা : মানিক সরকার মানিক ছবি : নিরঞ্জন চক্রবর্তী নিরু

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।